নেত্রকোণায় আন্দোলনের মুখে বন্ধ হলো ওরশ

প্রকাশিত: ৮:৩০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১

নেত্রকোণার দুর্গাপুরে উপজেলা ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটি, ইন্দ্রপুর মাদরাসা ও স্থানীদের আন্দোলনের মুখে বন্ধ হলো আক্তার আলী ফকির এর ওরশ। সোমবার দুর্গাপুর থানা পুলিশ এ ওরশ বন্ধ করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, দুর্গাপুর উপজেলা কাকৈরগড়া ইউনিয়নের ইন্দ্রপুর গ্রামে দীর্ঘদিন যাবৎ আক্তার আলী ফকির এর মাজারে বাৎসরিক ওরশ অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতে দিনব্যাপি এবং কিছুদিন পর একদিন, পরে দুইদিন এবং এরও কিছুদিন পর তিনদিন ব্যপি ওরশ পালিত হয়ে আসছিলো। শুরুতে তাদের কার্যক্রম ভালো থাকলেও বেশ কয়েক বছর ধরে ওরশ পালনের নামে ওই মাজারে চলছে নানা প্রশ্নবিদ্ধ কার্যক্রম। প্রতি বছরের মতো এবারও ২২, ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারী ৩দিন ব্যপি ওরশ এর আয়োজন করলে নানা এলাকা থেকে প্রশ্নবিদ্ধ লোকদের আগমন ঘটতে থাকলে স্থানীয় উলামা-মাশায়েকগন বাঁধা প্রদান করলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে মাজার কমিটির লোকজন।
এরই প্রতিবাদে উপজেলা ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটি, ইন্দ্রপুর মাদরাসা ও স্থানীয় উলামা মাশায়েকগন রাস্তায় আন্দোলনে নামেন। স্থানীয় কৃষ্ণরেচর বাজার জামে মসজদি ময়দানে হাফেজ রুহুল আমিন এর সঞ্চালনায় উপজেলা ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি মুফতি মামুনুর রশীদ এর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে আলোচনা করেন, মাও: আব্দুল আজিজ, মুফতি ওয়ালী উল্লাহ, মাওলানা মজিবুর রহমান, মুফতি হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

ওরশ বন্ধ করণ বিষয় নিয়ে মাজার কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, আজ থেকে ৩দিন ব্যপি ওরশ মোবারক শুরু হয়। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আমাদের ভক্তবৃন্দ এই ওরশ মোবারকে যোগ দিয়েছেন। এখানে কোন প্রকার অশালীন কার্যক্রম চলে না। আমরা শান্তিপুর্ন ভাবে আমাদের কার্যক্রম পরিচালনা করার প্রস্ততিকালে দুর্গাপুর থানা পুলিশ আমাদের কার্যক্রম বন্ধ রেখে আগামী ২৪ তারিখ শুধু আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করতে বলেন।

উপজেলা ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি মুফতি মামুনুর রশীদ বলেন, এই মাজারের নানা কার্যক্রমে আমরা অতিষ্ট। আজ থেকে ৩দিন ব্যপি ওরশ চলার ঘোষনা দিলে সর্বস্তরের উলামা মাশায়েকগন ওরশের কার্যক্রম বন্ধের দাবীতে শান্তিপুর্ন আন্দোলনে রাস্তায় নেমে আসেন। এতে দুর্গাপুর থানা পুলিশ ওরশের সকল কার্যক্রম বন্ধ রেখে শুধুমাত্র আগামী ২৪ তারিখ ওরশের কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ দিয়ে যান।