শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গো-বিচরণ বন্ধে মানা হচ্ছেনা কঠোর নির্দেশনা

প্রকাশিত: ১১:২১ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২১

সারাদেশের ন্যায় নেত্রকোনার দুর্গাপুরেও মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে
বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করে মাধ্যমিক পর্যায়ের
সকল স্কুলের ভবন খালি পড়ে আছে। এতে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে পাঠদানের
পরিবেশ। শুধু তাই নয়, এই সুযোগে স্কুলের কক্ষ থেকে শুরু করে বারান্দা এবং মাঠে
বেঁধে রাখা হচ্ছে গরু-ছাগল। ভেঙ্গে পড়ছে শিক্ষাঙ্গনের অবকাঠামোগত পরিবেশে।
এ নিয়ে বুধবার এলাকার বিভিন্ন স্কুল ঘুরে দেখা গেছে, করোনা কালিন
সময়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায়, স্কুলের কক্ষ, বারান্দা এবং মাঠে
বেঁধে রাখা হচ্ছিল গরু-ছাগল। ইতোমধ্যে সরকারি কঠোর নির্দেশনা থাকায়
স্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানগন নজরদারিতে নিয়ে আসলেও কিছু কিছু
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তা আমলে নিচ্ছেনা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রাথমিক শিক্ষক বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালী ও
দলীয় লোকজন প্রতিষ্ঠান না খোলায় বিভিন্ন সময়ে প্রতিষ্ঠানের আঙ্গিনা ও
স্কুলের বারান্দায় বৃষ্টি হলেই গরু-ছাগল বেধে রাখতো। স্কুলের প্রহরীগন নিয়মিত
দায়িত্ব পালন না করায় বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে এখনো গো-বিচরণ করতে দেখা
যায়।
এ নিয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. গোলাম মোস্তফা এ
প্রতিনিধি কে বলেন, উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গো-বিচরণ করছে
এমন খবর পেয়ে ওইসকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক
কঠোর সতকর্তা করা হয়েছে। ইতোমধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো খোলার আভাস
পেয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজও চলছে। স্কুল খোলা হলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে
পাঠদানে প্রস্তত রয়েছে প্রতিষ্ঠান গুলো।