সমাজ এক চলমান ধারা (পর্ব-৯)

প্রকাশিত: ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২১
সমাজ এক চলমান ধারা (পর্ব-৯)।
————————————————————————–
ননীগোপাল সরকার
ক’দিন যাবৎ প্রচন্ড বৃষ্টি । সেই সাথে ঝড়। বজ্র- বিদ্যুৎ। গুহা থেকে বের হওয়া যায় না। ঢুকছে গুহামুখে পানি। যে পাথর দিয়ে বন্ধ করা মুখ, তাতে পশুর আক্রমণ রোধ করা গেলেও পানির তোড় বাঁধ মানছে না। গুহার ভিতর এখন দিনের বেলাতেও অন্ধকার। হচ্ছে রোগ-শোক। সর্প এসে যাদের দংশন করেছিলো, কেউ বাঁচেনি। সর্বত্র যেনো শ্বাপদ-সঙ্কুল! প্রকৃতির হাতে বড় অসহায় আদিম মানুষের জীবন। একমাত্র মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা-লড়া ছাড়া বাঁচার কোনো সহজ উপায় তারা পায় না। পদে পদে মৃত্যুর হাতছানি!কিছু ফলমূল নারীরা সঞ্চিত রেখেছিলো, তাতে কী আর দিন চলে? কিন্তু দু:সময়ে এটাই বা কম কিসে? শিশু-গুলোকে বুকের দুধ খাইয়ে রাখা হচ্ছে। পুরুষরা অবাক বিষ্ময়ে ভাবে।
এখন বয়স্ক নারীরা বলে দিতে পারে শিশুটির পিতা কে? আর পুরুষরা নিজ রক্তের কোথায় যেনো মনগহীনে একটা আলাদা টান অনুভব করে। মায়া! পশুদের মতো আদিম মানুষগুলোর জীবনে কোথা থেকে যেনো নারী আর শিশুর প্রতি এক অনির্বচনীয় মমত্ববোধ কাজ করে। আপন আপন সন্তান নিয়ে খেলা করা, তাদেরকে শিকারের প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু করে তারা। আদিম শিশু জীবনে শিকারের ধারণা দেওয়াটাই ছিলো প্রথম শিক্ষা। অস্ত্রশিক্ষা। প্রতিটি শিশুকে শিখতে হয়। এটাই পৃথিবীর প্রথম শিক্ষাব্যবস্থা।
বয়স্ক ব্যক্তিরাও এক পর্যায়ে মায়েদের প্রাধান্য মেনে নেয়। বংশগতির দিক থেকে শুরু হয় প্রথম মাতৃতান্ত্রিকতা। ফলে আদিম এলোমেলো বিশৃংখল জীবনে কিছুটা হলেও শৃঙ্খলা ফিরে আসে। মায়েদের শাসন কঠোর হতে থাকে। তবে মায়েরা সন্ধ্যায় খাবারের পর, বয়স্ক পুরুষদের নিয়ে কিছুকিছু বিষয়ে আলোচনা করে। তাদের বডি লেঙ্গুয়েজের সাথে এখন একটা মৌখিক ভাষা তৈরী হয়েছে। তবে ভাষাটি আজকের মতো বাক্য নয়, শব্দ। এক একটি নামবাচক এবং কর্মবাচক শব্দ তারা চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে। অর্থাৎ বিশেষ্য এবং ক্রিয়াপদই মানবজাতির প্রথম ভাষা। এগুলো দিয়েই আলোচনা হয়। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একজন আদিমাতার শ্রেষ্ঠত্ব কায়েম হয়। এটাই ছিলো আদিম শাসন আর আলোচনাটাই ছিলো আদিম রাজনীতি। তারই পথ ধরে আজকের গণতান্ত্রিক রাজনীতি বিবর্তিত হয়েছে। সে অনেক অনেক কথা। কিন্তু রাজনীতির শুরুটাই ছিলো আদিম আলোচনা। এ কথাটা আমাদের মনে রাখতেই হবে। রাজার নীতি রাজনীতি নয়। সবার অংশগ্রহণ ও মতপ্রকাশই রাজনীতির গোড়ার কথা।
( চলবে…) ৩০।৬।২০২১।