ময়মনসিংহে কোতোয়ালীর অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত ও ওয়ারেন্টভুক্তসহ ১৮ জন গ্রেফতার

গোলাম কিবরিয়া পলাশ গোলাম কিবরিয়া পলাশ

জেলা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ

প্রকাশিত: ৮:৪৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০২১

ময়মনসিংহে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত ও পরোয়ানাভুক্ত ৮জনসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় বিভিন্ন এলাকা তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের নির্দেশে বিভাগীয় নগরীসহ সদর এলাকার আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণ, মাদক ও জুয়ামুক্তকরণসহ বিভিন্ন মামলার কার্যক্রম দ্রুততম সময়ে শেষ করার লক্ষে আদালত কর্তৃক পরোয়ানাভুক্ত আসামীদের গ্রেফতার করতে নিয়মিত অভিযান চলছে। এরই অংশ হিসাবে আজ ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় সাজাপ্রাপ্ত ও ওয়ারেন্টভুক্ত ৮জনসহ ১৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর মাঝে পুলিশ পরিদর্শক ওয়াজেদ আলীর নেতৃত্বে একটি টীম বাঘমারা এলাকা থেকে আশিষ হাজং, এসআই আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টীম বলাশপুর পাওয়ার হাউজ কলোনী সংলগ্ন এলাকা থেকে ডাকাতির চেষ্টা মামলার আসামী মোঃ রাকিব, মোঃ সুমন ভূইয়া, মোঃ আকাশ, মোঃ সাজ্জাতকে গ্রেফতার করে। তাদের কাছ থেকে কিরিচ, রামদা, সোর্ড ও চাকুসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এসআই কুমোদলাল দাসের নেতৃত্বে একটি টীম গোহাইলকান্দি জামতলা মসজিদ রোড এরাকা থেকে আসামী মানিক, মনির ও শাহিনকে গ্রেফতার করে। এসআই তাইজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টীম পাটগুদাম ব্রীজ মোড় থেকে ফয়সাল আহম্মেদ রাশেদ ও রাসেল মিয়া ওরফে জুয়েলকে গ্রেফতার করে।

এছাড়াও এসআই আশিকুল হক, এসআই শুভ্র সাহা, এসআই মাহফুজুর রহমান, এসআই আশিকুল হাসান, এএসআই মঞ্জরুল হক, এএসআই সোহেল রানা থানা এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে জিআর ও সিআর সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এবং জিআর ও সিআর মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত ৮জনকে গ্রেফতার করে। তারা হলো, বাজিতপুরের মোঃ লিয়াকত আলী, আকুয়া চুকাইতলা পূর্বপাড়ার হাতেম আলী, ঘাগড়ার মোঃ জাকির ইসলাম আকন্দ, নতুন বাজার সাহেব আলী রোডের আনিছুজ্জামান খান ওরফে আসাদ, বেলতলির মোঃ ইদ্রিছ।

পুলিশ আরো জানিয়েছে গ্রেফতারকৃতদের মাঝে একই ব্যক্তির নামে একাধিক ওয়ারেন্ট রয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ আরো জানান, এই অভিযান অব্যাহত রয়েছে। অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে তিনি এলাকাবাসির সহযোগীতা কামনা করেছেন।